বাংলাদেশ

আইন না মেনেই চলছে কুষ্টিয়ার জুবিলী ব্যাংক

সপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িতদের মালিকানাধীন কুষ্টিয়ার জুবিলী ব্যাংক আইন না মেনেই তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কোন শর্ত না মেনে দীর্ঘদিন পরিচালিত ব্যাংকটির কার্যক্রমে হতবাক উচ্চ আদালত। মুজিববর্ষেই ব্যাংকটির অবসায়ন চায় হাইকোর্ট।

১৯১৩ সালের কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার জানিপুরে খোকসা জানিপুর জুবিলী ব্যাংক কার্যক্রমে শুরু করে। এরপর ১৯৮৪ সালে বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি লাইসেন্স নিয়ে বাণিজ্যিকভাবে কার্যক্রম শুরু হয়।

তখন ২৫ হাজার টাকা অথবা সোনা বন্ধক রেখে ব্যাংকের কার্যক্রম চালানোর বিষয়ে অনুমতি ছিলো ব্যাংকটির। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের এই অনুমতি না মেনে বহু আগেই সাধারণ ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করে ব্যাংকটি। কুষ্টিয়ার খোকসা ছাড়া দেশের আর কোথাও নেই ব্যাংকটির শাখা। তবে ২০১২ সালে একটি মামলার কারণে ব্যাংকটির কার্যক্রম নজরে আসে। ব্যাংকের বার্ষিক সাধারণ সভা এবং চেয়ারম্যানের পদ নিয়ে উচ্চ আদালতে মামলা দায়ের হয়।

দীর্ঘদিন শুনানী শেষে আদালত ২০১৭ সালে মামলার রায় দেন। ব্যাংকটির শেয়ার মালিকদের তথ্য চেয়ে সরকারের যৌথ মূলধনী কোম্পানি ও ফার্মসমূহের নিবন্ধকের পরিদফতর আরজেএসসির কাছে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন আদালত। ঐ প্রতিবেদন এ উঠে আসে ব্যাংকটির বেআইনী কার্যক্রমের বিষয়।

এর আগে হাইকোর্ট শেয়ার মালিক এমবিআই মুন্সির আবেদন খারিজ করে ব্যাংকটি অবসায়নের পক্ষে রায় দেন। পরে শহীদ উল্লাহ নামে আরো একজন ব্যাংকের মালিকানা দাবি করে মামলা করলে আদালত পর্যবেক্ষণসহ আদেশ দেন।

আদালত তার লিখিত আদেশে,এতদিন কেন ব্যাংকটির বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়নি তা জানতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনরের কাছে প্রতিবেদন চেয়েছেন। এছাড়া আরজেএসসির তালিকা থেকে জুবিলী ব্যাংকের নাম বাদ দেয়ার নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

ফিহো/লিশা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

হেঁচকি ওঠার কারণ ও কমানোর উপায়
মশা তাড়াতে যেসব উপকরণ ব্যবহার করা যায়
গ্রিন টির ভালো-মন্দ
পাহাড়ের ভাষা, সমতলের ভাষা