আন্তর্জাতিক, বাংলাদেশ, শীর্ষ খবর

আগামী সপ্তাহেই প্রত্যাবাসনে সম্মতি মিয়ানমারের

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হতে যাচ্ছে আগামী সপ্তাহেই। এক বছরেরও বেশি সময়ের টানাপড়েন শেষে ২২ আগস্ট থেকে এই প্রত্যাবাসন শুরু হবে। প্রথম ধাপে সাড়ে ৩ হাজার রোহিঙ্গাকে ফেরত নেওয়া হচ্ছে। মার্কিন বার্তা সংস্থা থমসন রয়টার্স বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের কূটনীতিক সূত্রের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার এক বিশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

এর আগে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে মিয়ানমারকে ২২ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা দেওয়া হয়েছিল। তার মধ্য থেকে যাচাই-বাছাই শেষে আগামী সপ্তাহে প্রথম ধাপে তিন হাজার ৫৪০ জন রোহিঙ্গা স্বদেশে ফিরবে।

রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর বিষয়ে মিয়ানমারকে চাপ দিয়ে এলেও বাংলাদেশ এটাও বলেছে, কাউকেই জোর করে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে না।

উল্লেখ্য মিয়ানমারে আদিবাসী জনগোষ্ঠী ও নাগরিকত্বের স্বীকৃতির না মিললে রোহিঙ্গারা ফিরে যেতে চাইবে না। তাই এই দফার চেষ্টা ফলপ্রসূ হবে কি না, তা এখনও অনিশ্চিত।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা সংকটের শুরু। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে কয়েকটি নিরাপত্তাচৌকিতে হামলার ঘটনা ঘটে। তা জেরে সেখানে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান শুরু করেছিল দেশটির সেনাবাহিনী। প্রাণ বাঁচাতে সাড়ে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। রোহিঙ্গাদের অভিযোগ, মিয়ানমারের সেনারা রোহিঙ্গা গ্রামগুলোয় গণহত্যা, ধর্ষণ ও অগ্নিসংযোগ করেছে। তবে মিয়ানমারের সরকার ও সেনাবাহিনী এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

LIVE
Play
ছাত্র সংগঠনগুলোর আয়ের উৎস কী?
হলুদের গুণাগুণ
ভয়ঙ্কর গ্যাস এসএফ-সিক্স
বোকা পাখি ডোডো