বাংলাদেশ

উপাচার্যনামা

একের পর এক ঘটনার জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা। তাদের বিরুদ্ধে উঠে এসেছে নানা অভিযোগ। চলছে আলোচনা সমালোচনা।

গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) গত ছয় মাসে সাত শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ফেসবুকে বিরুদ্ধ মত জানিয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন তাঁরা। এই ছিল তাদের অপরাধ।

ভিসির বাসভবনে বিউটি পার্লার!

গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিন তার বাস ভবনে বিউটি পার্লার দিয়ে ব্যবসা করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

শুধু বিউটি পার্লারই না ভর্তি বাণিজ্য থেকে শুরু করে নিয়ম বহির্ভূত নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

উপাচার্যনামা

বলা না বলা বিষয়: উপাচার্য নামা।সঞ্চালক: শাহনাজ শারমীনঅতিথি: ড. মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন ( সাবেক উপাচার্য, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়) এবং শওকত মাহমুদ (সিনিয়র সাংবাদিক)

Posted by Nagorik – নাগরিক on Wednesday, September 18, 2019

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

গত ৯ আগস্ট জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্যের বাসায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের একটি অংশের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন উপাচার্য ও তার পরিবারের দুই সদস্য। সংগঠনটির দাবি অনুযায়ী তারা ২৫ লাখ টাকা গ্রহণ করে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছেছিলেন।

ছাত্রলীগের সেই অংশের নেতারা বলেন, বৈঠকের পর জাবি ছাত্রলীগকে ‘ঈদ সালামি’ হিসেবে  টাকা দেওয়া হয়েছিলো। বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়- জাবি ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানাকে ৫০ লাখ টাকা এবং সাধারণ সম্পাদক এসএম আবু সুফিয়ান চঞ্চলকে ২৫ লাখ টাকা দেওয়া হবে।

১৪ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অপসারণ করার পরপরই একটি অডিও ফাঁস হয়। তাতে জানা যায়, উপাচার্যের পরিবার এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের প্রথম সারির নেতারা অর্থ লেনদেনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

চিরকুট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশ না নিয়েও শুধু ‘চিরকুট’ দেখিয়ে ৩৪ জন শিক্ষার্থী ভর্তির ঘটনায় আলোচনায়-সমালোচনার মুখে পড়েছে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

তবে চিরকুটে ভর্তির দায় নিতে চাইছেন না উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান বা ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম। বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে মন্তব্য করেছেন উপাচার্য।

শিক্ষার্থীদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বলে গালি

গত ২৬ মার্চ শিক্ষার্থীদের বাদ দিয়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) কর্তৃপক্ষ স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান করায় শিক্ষার্থীরা সেটার প্রতিবাদ করেছিল। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ ভিসি ড. এস এম ইমামুল হক তাদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বলে গালি দেন। তাতেই ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে গোটা ক্যাম্পাসে। ভিসির পদত্যাগসহ ১০ দফা দাবিতে পনেরো দিন ধরে অনশন, অবস্থান ধর্মঘট, ক্লাস বর্জন ও সড়ক অবরোধসহ নানা কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। আন্দোলনের প্রেক্ষিতে ভিসি ছুটিতে যায়।

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংকট অনেকদিনের। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এম অহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে নানা অনিয়মের।

ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগের অনিয়ম-দুর্নীতি তদন্ত করতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনও (ইউজিসি)। ২০১৬ সালের ১৭ এপ্রিল ইউজিসির তদন্ত কমিটি ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের অনিয়ম তদন্ত করতে গেলে বাধার মুখে তাদের ঢাকায় ফিরে যেতে হয়।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধেও আছে নানা অভিযোগ। উপাচার্যের মেয়াদের শেষ দিকে একের পর এক নিয়োগ হয়েছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ডামাডোলের মধ্যে গত ডিসেম্বরে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পদে ১৪২ জনকে স্থায়ী ও অস্থায়ী ভিত্তিতে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

LIVE
Play
গাণিতিকভাবে সবচেয়ে নিখুঁত সুন্দরী বেলা হাদিদ!
স্পেনের জানা-অজানা
টিকটকের মধুবালা
ফোর্বসের তালিকায় ২০১৯ সালে ভারতের শীর্ষ ধনী