আন্তর্জাতিক, বাংলাদেশ, শীর্ষ খবর

এশিয়ার মাদকসম্রাট সে চি লপ গ্রেপ্তার

এশিয়ার ‘মাদকসম্রাট’ নামে পরিচিত চীনা বংশোদ্ভূত কানাডার নাগরিক সে চি লপকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার জারি করা এক গ্রেপ্তারি পরোয়ানার ভিত্তিতে বিশ্বের বৃহত্তম মাদক ব্যবসায়ী গোষ্ঠীগুলোর একটির এ প্রধানকে গ্রেপ্তার করে নেদারল্যান্ডসের পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত লপ দ্য কোম্পানি নামের একটি মাদক গোষ্ঠীর প্রধান বলে জানা যায়। এশিয়াজুড়ে সাত হাজার কোটি মার্কিন ডলারের অবৈধ মাদক বাজার নিয়ন্ত্রণ করে থাকে গোষ্ঠীটি। বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ পলাতক আসামিদের তালিকার অন্যতম ব্যক্তি ছিলেন লপ। আমস্টারডামের শিফল বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাঁকে। অস্ট্রেলিয়া বিচারের জন্য তাঁকে তাদের হাতে তুলে দেওয়ার আহ্বান জানাবে।

অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ এক দশকের বেশি সময় ধরে লপের অবস্থান চিহ্নিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল বলে জানা যায়। শেষমেশ গত শুক্রবার আমস্টারডাম বিমানবন্দর থেকে কানাডা যাওয়ার পথে ধরা পড়েন তিনি।

পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, লপের বিরুদ্ধে ২০১৯ সালে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছিল। পরে তাঁকে ধরতে ইন্টারপোল নোটিশ জারি করে। নেদারল্যান্ডস পুলিশের মুখপাত্র বলেন, ‘লপ পুলিশের শীর্ষ তালিকাভুক্ত আসামি ছিলেন। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাঁকে।’

রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী, লপকে গ্রেপ্তারে পরিচালিত অভিযান ‘অপারেশন কুনগুর’-এ বিভিন্ন মহাদেশের প্রায় ২০টি সংস্থা অংশগ্রহণ করে। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় তিনি ম্যাকাও, হংকং ও তাইওয়ানে অবস্থান করছিলেন বলে শোনা যায়।

যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৯০–এর দশকে লপকে মাদক চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে নয় বছর জেলে কাটান তিনি। অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমগুলোর কথায়, লপ গ্রেপ্তার হওয়ার বিষয়টি দেশটির কেন্দ্রীয় পুলিশ বাহিনীর জন্য গত দুই দশকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

গ্রিন টির ভালো-মন্দ
পাহাড়ের ভাষা, সমতলের ভাষা
স্যানিটাইজার ব্যবহারে বাড়ছে শিশুদের চোখের সমস্যা
অনলাইন আড্ডায় রুবানা হক