চলচ্চিত্র, বাংলাদেশ, বিনোদন

কেজিএফ লুকে শাকিব খান!

বিনোদন প্রতিবেদক

শাকিব খান আর সমালোচনা একই মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ। বিভিন্ন সময় তার প্রমাণ পেয়েছে ঢালিউড ইণ্ডাস্ট্রি। রিল লাইফের পাশাপাশি রিয়েল লাইফে রয়েছে তার অনেক সমালোচনা। চলতি বছর ঈদুল ফিতরে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘পাসওয়ার্ড’ সিনেমাটি নিয়ে প্রচুর সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন শাকিব খান ও তার পরিচালক মালেক আফসারী।  মূলত বিদেশি ছবির গল্প অবলম্বনে সিনেমাটি নির্মিত হওয়ায় সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে।

আবারও সমালোচনার মুখে পড়তে যাচ্ছেন ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান। এবার তার নতুন সিনেমা ‘বীর’ এর ফার্স্টলুকের কারণে সোশ্যাল দুনিয়ার সমালোচিত তিনি। ১২ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) প্রকাশিত হয়েছে কাজী হায়াত পরিচালিত ‘বীর’ ছবির ফার্স্টলুক।  প্রকাশ হওয়ার পরপরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ আলোচিত-সমালোচিত এটি। প্রকাশিত পোস্টারের সঙ্গে ইয়াশ অভিনীত ‘কেজিএফ’ সিনেমার অফিসিয়াল পোস্টারের মিল পাওয়া গেছে।

পাশাপাশি ‘কেজিএফ’ ও ‘বীর’ সিনেমার পোস্টার

‘বীর’ সিনেমার ফার্স্টলুকের সমালোচনা করেছেন অনেকেই। 

বিনোদন সাংবাদিক ও কণ্ঠশিল্পী তানভীর তারেক তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘পোস্টারে কেজিএফ ফিল আছে। পোস্টার কালার টোন-কয়লাপট্টি-শাকিব লুক এই ৩টা বলছে কেজিএফ থেকে অনুপ্রাণিত। একটু মাথা খাটান। পোস্টারের ফার্ষ্ট লুকটাও মারতে হবে ক্যান ? কাজী হায়াত চাচার না হয় বয়স হইছে বুঝলাম। আর কেউ নাই? শাকিবের তো এখনও ব্রেনটা ঠিক আছে ? আর কত নকলবাজি !!! একটা ইউনিক ডিজাইন কী করা যাইতো না। দেশের গ্রাফিক ডিজাইনের অভাব পড়ছে ?? হ্যাঁ। এখন কথা থাকতে পারে, যদি কেজিএফ মাইরাই ছবি বানাইয়া থাকেন, তাইলে তো উপায় নাই। এখন থেকে ফাউল ছবি যে বানাবে, হলের টিকিটের টাকা যদি আমার নষ্ট করে কেউ, ওপেন গালাগালি হবে। ফাইজলামি গত কয়েকবছর বহুত সহ্য করেছি, আর না! হবে হচ্ছে, সুযোগ দিই। রিভিউ লিখলে দর্শক নষ্ট হবে। আরে ব্যাটা, ভুয়া তেলবাজি রিভিউ লিখে লিখে তো দর্শকদের প্রতারিত করা হচ্ছে..!! যাইহোক, এখন গল্পের গরু কেজিএফ এর মাঠে দৌড় না মারলেই হয়, কয়লায় ময়লা না থাকলেই হয় আরকি। আমরা আবারও একবুক আশায় বুক বাঁধিলাম। আমাদের দর্শক মন ঠকতে ঠকতে এখন দুধ দেখিয়ে চুনা মনে হয়! কী করুম!! এনিওয়ে। গুডলাক।’

ফার্স্টলুক প্রকাশের পর কেউ কেউ সিনেমার গল্প নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।  যেহেতু পোস্টারে মিল পাওয়া গেছে, তাই গল্পেও মিল পাওয়া যেতে পারে। এমনটাই মনে করছেন অনেকে। তবে গল্পের সঙ্গে কতটা মিল থাকছে তা জানার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরও কিছুদিন।  যদিও বিষয়টি মেনে নিতে নারাজ শাকিবিয়ানরা। তারা বলছেন, নতুন লুকে দর্শকের সামনে আসছে তাদের প্রিয় নায়ক। যা দর্শকদের হলমুখি করবে।

সেলিম শাকিব নামে এক শাকিব ভক্ত বলছেন, ‘দুটি জিনিস সম্পূর্ণ আলাদা। বেলছা আর নোঙ্গর এক জিনিস নয়। লুকও এক নয়। দুটি পাশাপাশি রাখলে দেখতে হয়তো কাকতালীয় ভাবে কিছুটা মিল পাওয়া যায়, এ ব্যাপারে বীর টিম কোন অনুকরণ করেনি। সবকিছু বাদ দিয়ে যদি ‘কেজিএফ’ সিনেমার সঙ্গে ‘বীর’ সিনেমার গল্প মিলে যায় তাহলে আবারও সমালোচনার মুখে পড়তে হবে এ সুপারস্টারকে।

‘বীর’ সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন শাকিব খান ও মোহাম্মদ ইকবাল। শাকিব-বুবলী জুটির ১১তম সিনেমা এটি।  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে সিনেমাটি মুক্তির পরিকল্পনা চলছে। শাকিব-বুবলী ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন মিশা সওদাগর, নাদিম প্রমুখ।

LIVE


মোবাইল-টিভিতে চোখ, কতটা ক্ষতি হচ্ছে শিশুর!
কেন নেবেন কাউন্সেলিং সেবা?
টেইলর সুইফটের প্রতিদিনের রুটিন
আমাজন রেইন ফরেস্টের নিধন বেড়েছে ৮৫ শতাংশ