বাংলাদেশ, শীর্ষ খবর

গণহত্যার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সু চি

রাখাইনে রোহিঙ্গা গণহত্যার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি। নেদারল্যান্ডসের হেগে আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতে দ্বিতীয় দিনের শুনানিতে একথা বলেন তিনি।

মঙ্গলবার প্রথম দিনের শুনানিতে, মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ আনে মামলাকারী দেশ গাম্বিয়া। এমন অভিযোগ অসম্পূর্ণ ও  ত্রুটিপূর্ণ বলে আখ্যা দিয়েছেন সু চি।

বাংলাদেশ সময় বুধবার দুপুর ৩টার একটু পরই নেদারল্যান্ডসের হেগের আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতে দ্বিতীয় দিনের শুনানি শুরু হয়। এতে বেশকজন আইনজীবীসহ অংশ নেন মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি।

শুরুতেই নিজ দেশের সেনাদের সাফাই গাইতে শুরু করেন সু চি। বলেন, ২০১৭ সালে নিরাপত্তা চৌকিতে হামলা করে বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী আরসা। এতে অনেকেই হতাহত হন। এরপর মিয়ানমার সেনাবাহিনী অভিযান চালালে রোহিঙ্গারা ভয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে।

তিনি আরো বলেন, আরসাকে ঠেকাতে সেনারা অভিযান চালায়। তবে মিয়ানমারের সেই ক্লিয়ারেন্স অপারেশন্সকে ভুলভাবে ব্যাখ্যা করেছে গাম্বিয়া।

রাখাইনে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিরুদ্ধে অভিযানের সময় সেনাবাহিনীর হাতে নিরীহ লোকজন নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, মিয়ানমারের সংবিধান অনুযায়ী সামরিক আদালতে অপরাধী সেনা সদস্যদের বিচার হচ্ছে। বেশ কয়েকটি ঘটনায় সেনা সদস্যদের সাজা পাওয়ার কথাও আন্তর্জাতিক বিচার আদালতকে জানান তিনি।

বিশ্বজুড়ে রোহিঙ্গা গণহত্যা বলা হলেও, বিষয়টি আন্তর্জাতিক আদালতে নিয়ে আসায়, গাম্বিয়ার সমালোচনা করেন সু চি।

মঙ্গলবার জাতিসংঘের সর্বোচ্চ এই আদালতে, মিয়ানমারে গণহত্যা বন্ধে অবিলম্বে অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দেয়ার আবেদন জানায় গাম্বিয়া। আর এটি গণহত্যা কি না, তা নির্ধারণ করে এই আদালতের রায় দিতে লেগে যেতে পারে কয়েক বছর।

LIVE


মোবাইল-টিভিতে চোখ, কতটা ক্ষতি হচ্ছে শিশুর!
কেন নেবেন কাউন্সেলিং সেবা?
টেইলর সুইফটের প্রতিদিনের রুটিন
আমাজন রেইন ফরেস্টের নিধন বেড়েছে ৮৫ শতাংশ