ফিচার, বিচিত্র বিশ্ব ,

জানা-অজানার দক্ষিণ কোরিয়া

ফারহানা মৌলি

আধুনিক বিশ্বে নাগরিক সুবিধা ও উন্নত জীবনমানের জন্য দক্ষিণ কোরিয়া বেশ পরিচিত। জ্ঞান, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির মাধ্যমে দক্ষিণ কোরিয়া আজ উন্নতির চরম শিখরে। পরিশ্রমী জাতি হিসাবে পরিচিত এশিয়ার অন্যতম এই দেশ।

চলুন জেনে নিই দক্ষিণ কোরিয়া নিয়ে কিছু তথ্য,

১. দক্ষিণ কোরিয়ানরা স্বল্প দূরত্বের জায়গায় যেতে কখনো গাড়ি ব্যবহার করে না, বরং হেঁটে গন্তব্যে পৌঁছানোকেই তারা যুক্তিসঙ্গত মনে করে। অনেক সময় তারা গন্তব্যস্থলের আগেই গাড়ি থামান যাতে কিছুটা পথ হাঁটা যায়। সেই সাথে দৌঁড়ানো, নানা ধরণের শারীরিক ব্যায়াম তাদের প্রাত্যহিক জীবনের অংশ।

২. প্রসাধনী সামগ্রী কি শুধু নারীরাই ব্যবহার করেন? না, দক্ষিণ কোরিয়ার পুরুষরাও নিজেদের সুন্দর দেখাতে মেকআপ ব্যবহার করেন। একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, এই দেশের ২০ শতাংশ পুরুষ প্রসাধনী ব্যবহার করেন। তাদের মধ্যে উঠতি বয়সী বা তরুণদের সংখ্যাটা বেশি! শুধু তাই নয়, পুরুষদের প্রসাধনীর দামও কিন্তু এখানে বেশ চড়া।

৩. এখানকার অধিবাসীদের মধ্যে ২০ শতাংশ মানুষের নাম ‘কিম’! শুধু তাই না, আরো দুটি  বহুল প্রচলিত নাম ‘লি’ এবং ‘পার্ক’। কাজেই আপনাকে যদি দক্ষিণ কোরিয়ান কাউকে দেখিয়ে তার নাম অনুমান করতে বলা হয় এবং সেক্ষেত্রে এই তিনটি নামের যে কোন একটি যদি আপনি বলেন তাহলে ২০ শতাংশ সম্ভাবনা রয়েছে আপনার উত্তর ঠিক হওয়ার।

৪. দক্ষিণ কোরিয়ায় সৌন্দর্য চর্চায় পুরুষদের পাশাপাশি পিছিয়ে নেই নারীরাও। বিশ্বের অন্যান্য দেশে প্লাস্টিক সার্জারি বহুল প্রচলিত না হলেও দক্ষিণ কোরিয়ার নারীদের তিন ভাগের এক ভাগ তাদের শরীরের কোন না কোন অংশে প্লাস্টিক সার্জারি করিয়ে থাকেন।

৫. ছবি তোলার সময় আমরা অনেকে বলি c-h-e-e-s-e! কিন্তু দক্ষিণ কোরিয়ানরা বলে থাকেন ‘kimchi’ ।  তবে, কিমচি হল দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় একটি খাবারের নাম।

৬. এখানে শিশুদের জন্মের পর তাদের বয়স এক বছর ধরা হয় ।

৭. গ্যাজেট ফ্রিক মানুষদের তীর্থস্থান বলা হয় দক্ষিণ কোরিয়াকে। বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী নির্মাতা স্যামসাং একটি দক্ষিণ কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান। উন্নত প্রযুক্তির স্মার্টফোন, নোটবুক, ল্যাপটপ থেকে শুরু করে আধুনিক হেডফোন, স্পিকার এখানকার সবার হাতে হাতে দেখা যায়। সারা বিশ্বে দ্রুতগতিসম্পন্ন ইন্টারনেটের হাতেগোনা যেকয়টি দেশ আছে দক্ষিণ কোরিয়া তাদের মধ্যে অন্যতম।

৮. কোরিয়ান পপ সংগীত শুধু সে দেশেই নয়, সারা বিশ্বে দারুণ জনপ্রিয়। ২০১২ সালে রিলিজ হওয়া Gangnam Style গানটির কথা নিশ্চয় আপনাদের মনে আছে। সেই সময়ে সবচেয়ে বেশি ইউটিউব ভিউ ছিল এই মিউজিক ভিডিওর।

৯. চীন ও জাপানের পরে দক্ষিণ কোরিয়া এশিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম এবং বিশ্বের সপ্তম বৃহত্তম রফতানিকারক দেশ। কম্পিউটার, ফোন এবং অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স পণ্য রফতানিতে কোরিয়া দিনকে দিন ভাল করছে। সেইসাথে কোরিয়ান নামিদামি ব্র্যান্ডগুলোও বিশ্বব্যাপি মানুষের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

১০. দক্ষিণ কোরিয়াতে অপরাধীর শাস্তি শুরু হওয়ার আগে পুলিশ অপরাধের দৃশ্যটি পুনরায় অনেকটা অভিনয়ের ছলে দেখাতে বাধ্য করে এবং প্রেসকে ছবি  তোলা এবং ভিডিও তৈরি করার অনুমতি দেওয়া হয়। 

LIVE
কলার দাম ১ কোটি ১ লাখ ৭৬ হাজার টাকা!
বিশ্বের কয়েকটি নান্দনিক সড়ক
নতুন বিড়ম্বনায় ডেনেরিস টারগেরিয়ান খ্যাত এমিলিয়া ক্লার্ক
সিআইএ’র গোপন মিশনে ভবিষ্যতে গিয়েছিলেন স্মিথ!