আন্তর্জাতিক, বাংলাদেশ

দ. কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট পার্কের ২০ বছর কারাদণ্ড

দক্ষিণ কোরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট পার্ক গিউন-হেকে ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

বৃহস্পতিবার দেশটির উচ্চ আদালত তাকে ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির দায়ে এই দণ্ডাদেশ দেন। এর পাশাপাশি আদালত তাকে ১৮ বিলিয়ন ডলার জরিমানাও করেছেন।

প্রথমে গত জুলাই মাসে পার্ককে প্রায় ৩০ বছরের জেল ও ২০ বিলিয়ন ডলার জরিমানা করা হয়েছিল। তবে ওই জরিমানা ও কারাদণ্ডের মেয়াদ হ্রাস করে বৃহস্পতিবার দেশটির উচ্চ আদালত চূড়ান্ত এই রায় প্রদান করেন।

২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রথম নারী হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেন পার্ক। এরপর থেকেই তার বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগ ওঠে। বন্ধু চোই সুন-সিল পার্কের সঙ্গে সম্পর্কের সুবাদে অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠান থেকে অনুদানের নামে সাড়ে ৬৫ মিলিয়ন ডলার হাতিয়ে নেন বলে অভিযোগ ওঠে।

এর মধ্যে স্যামসাং এবং হুন্দাইয়ের মতো কোম্পানিও রয়েছে। ওই অর্থ সন্দেহভাজন একটি ফাউন্ডেশনের নামে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগে বলা হয়, পার্ক এসব ফান্ড থেকে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছেন।

এসব অভিযোগ ওঠার পর ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে দক্ষিণ কোরিয়ার আইন প্রণেতারা পার্ককে অভিশংসিত করার পক্ষে রায় দেন। তখন থেকেই প্রেসিডেন্ট হিসেবে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে রাখা হয়।

আর ২০১৭ সালের ১০ মার্চ পার্ককে সাংবিধানিক আদালত চূড়ান্তভাবে অভিশংসিত করে। এরপর তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ফই//

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

উচ্চ রক্তচাপে করণীয়
দ্রুত চুল লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায়
পৌষসংক্রান্তি থেকে ‘সাকরাইন’
অ্যালোভেরার যত গুণ