আন্তর্জাতিক, বাংলাদেশ, শীর্ষ খবর

নন্দীগ্রামে হেরে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার জটিলতায় মমতা

কে হচ্ছেন, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। এমন আলোচনায় প্রশ্ন উঠেছে, দলের নেত্রী মমতা কি আবারও মুখ্যমন্ত্রী হতে পারবেন? কারণ তৃণমূল কংগ্রেস পশ্চিমবঙ্গে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলেও নিজের আসনে হেরে গেছেন মমতা। আর একজন বিধায়ক না হয়ে মুখ্যমন্ত্রী হতে হলে কি করণীয় মমতার।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা তৃণমূলের। এমন জয়ের দিনে নন্দীগ্রামে নিজ আসনে বিজেপির শুভেন্দুর কাছে হেরে যান মমতা। অভিযোগ তুলে পুর্ণগণনা চাইলেও তা খারিজ করে কমিশন।

এ অবস্থায় মমতার দল সরকার গঠন করলেও নিজ আসনে হেরে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর পদে থাকা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে মমতার। ভারতীয় সংবিধান অনুযায়ী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হতে হলে তাকে বিধানসভার সদস্য হতে হবে। আর বিধানসভার সদস্য না হয়েও কেউ যদি মুখ্যমন্ত্রী পদে বসেন, তবে তাকে সংশ্লিষ্ট রাজ্যপালের অনুমতি নিতে হবে।

সেক্ষেত্রে মমতার দল যেহেতু সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে। তাই দলের বিধায়করা যদি তাকে নেতা নির্বাচিত করেন, তাহলে তার মুখ্যমন্ত্রী হতে আইনগত কোনো বাধা নেই। তবে তাকে আগামী ছয় মাসের মধ্যে অন্য কোনো আসন থেকে জিততে হবে। তবেই তিনি মুখ্যমন্ত্রীর পদ ধরতে রাখতে পারবেন। আর তখনও যদি হারেন, সেক্ষেত্রে পদ ছাড়তে হবে।

তাহলে কোথায় নির্বাচন করতে পারেন মমতা। আলোচনায় মুর্শিদাবাদ জেলার সামশেরগঞ্জ ও জঙ্গিপুর। এই দুই আসনে সংযুক্ত মোর্চার দুই প্রার্থী করোনা আক্রান্ত হয়ে মাওয়ায় ভোট হবে ১৬ মে। এখানেও প্রার্থী হতে পারেন মমতা, নইলে দক্ষিণ কলকাতার ভবানীপুর কেন্দ্র থেকেও ভোটে দাঁড়াতে পারেন তিনি। সেক্ষেত্রে ওই আসনের বিধায়ককে পদত্যাগ করতে হবে।

ফিহো/লিশা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

হেঁচকি ওঠার কারণ ও কমানোর উপায়
মশা তাড়াতে যেসব উপকরণ ব্যবহার করা যায়
গ্রিন টির ভালো-মন্দ
পাহাড়ের ভাষা, সমতলের ভাষা