আলোচিত, বাংলাদেশ

ফেসবুকে লাইভ দিয়ে বিড়াল হত্যায় মামলা

চোখ না ফোটা ছোট একটি বিড়াল ছানার  পেটের  উপর দিয়ে চুরি চালিয়ে নির্মমভাবে হত্যার একটি ভিডিও সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।  একিসাথে ভাইরাল হয়েছে বিড়ালের অটোপসি ক্যাপশনে আরো কিছু ছবি, যেখানে আরো একটি পূর্ণবয়স্ক বিড়ালের চামড়া ছাড়িয়ে মাথার খুলি, পাকস্থলী, কিডনিসহ নানা অঙ্গ প্রত্যঙ্গের ছবি পোস্ট করা হয়েছে।  এই পুরো কাজটি নিজের প্রোফাইল থেকে পোস্ট করেন একজন তরুণী।

 

ঘটনাটি প্রাণী অধিকার কর্মীদের নজরে আসলে রাজধানীর মুগদা থানায় মামলা করে প্রাণী কল্যাণ সংস্থা কেয়ার ফর পস। বিড়াল ছানা হত্যার অভিযোগে সংগঠনের মহাসচিব জাহিদ হাসান ঘাতক তরুণী ইসরাতের নামে মামলা করেন। এরপরই গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্তকে।  তবে মেয়েটির বয়স ১৮এর নিচে হওয়ায় আদালতে নেয়ার পর তার জামিন হয়।

 

পুলিশ সংবাদমাধ্যমকে জানায়, অভিযুক্ত ইসরাত ঘটনাটি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে এবং তার মোবাইলে বিড়াল হত্যার দৃশ্য পাওয়া গেছে।

 

কেয়ার ফর পস সংগঠনের একজন কর্মী সংবাদমাধ্যমকে জানান, আমরা মেয়েটির এই বিভৎস কাজে ক্ষুব্ধ। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছি। পুলিশ তাকে হেফাজতে নিলেও সে অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় পরদিন ছেড়ে দেয়।

 

তিনি আরো জানান, আমরা গত কয়েকদিন চেষ্টা করে তাকে চিহ্নিত করেছি। মেয়েটি বিড়ালটিকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। তবে তার মা ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করছেন। তারা আমাদের সঙ্গে মীমাংসা করারও প্রস্তাব দিয়েছিলো। তবে আমরা খিলগাঁও থানা পুলিশের সহযোগিতা নিয়েছি।

 

অভিযুক্ত তরুণী জানায়, আমি এর আগে ছোট ছোট সায়েন্স এক্সপেরিমেন্ট করেছি। এটাও কৌতুহল বশত করেছি। আমি খুব দুঃখিত, ভবিষ্যতে এরকম আর করবো না।

 

মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডা নাঈম আকতার আব্বাসী সংবাদ মাধ্যমকে জানান, পার্সোনালিটি ডিসঅর্ডার বা কন্ডাক্ট ডিসঅর্ডারের মত মানসিক রোগীদের ক্ষেত্রে এধরণের বিকারগ্রস্থ আচরণ প্রকাশ পেতে পারে।

 

জানা গেছে, অভিযুক্ত তরুণী ২০১৭ সালে এসএসসি পাস করে ঢাকার ন্যাশনাল আইডিয়াল কলেজে ভর্তি  হলেও নকল করার অভিযোগে তাকে বের করে দেয়া হয়।

 

জাআ/মাও
LIVE
Play
ভারত সরকার কি মিথ্যা বলছে?
ভারতকে কি হারাতে পারবে নিউজিল্যান্ড?
কতটা কঠিন হবে বাংলাদেশের সেমিফাইনাল?
রাইড শেয়ারিংয়ের অর্থনীতি