বাংলাদেশ

বছরের প্রথম সূর্যগ্রহণ, দেখা যায়নি বাংলাদেশ থেকে

চাঁদ, পৃথিবী আর সূর্য। আবারো এসে পড়লো এক কাতারে। বছরের প্রথম সূর্যগ্রহণ দেখলো বিশ্ববাসী। দিন পনেরো আগেই হয়েছে চন্দ্রগ্রহণ। এ কারণে, মহাজাগতিক এই ঘটনার ওপর, গভীর নজর রেখেছেন বিজ্ঞানীরা।

গত ২৬ মে ছিলো চন্দ্রগ্রহণ। আর ১৫ দিনের মাথায় দেখা গেলো সূর্যগ্রহণের মতো মহাজাগতিক ঘটনা।

এতো দ্রুত সময়ের মধ্যে দুটি বড় ঘটনা হওয়ায়, উত্তেজনাটা ছিলো বাড়তি। আবার এ ধরনের সূর্যগ্রহণটাও হয় ১৮ বছরে একবার। এমন গ্রহণকালে বহু বিরল মহাজাগতিক ঘটনা উঠে আসে। এবারের আকর্ষণ ছিলো- রিং অফ ফায়ার।

চাঁদ, পৃথিবী ও সূর্য একই সরলরেখায় এলো, দেখা দেয় এমন ঘটনা। চাঁদের ছায়া একটা সময় সম্পূর্ণরূপে ঢেকে দেয় সূর্যকে। তখনই তৈরি হয় রিং অফ ফায়ার বা সান হ্যালো।

জ্যোতিষ শাস্ত্রেও এই দিনটি বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ। ১৪৮ বছর পর, শনি জয়ন্তীতে এই সূর্যগ্রহণ হলো। শেষবার হয়েছিলো ১৮৭৩ সালে।

দুপুর সোয়া দুইটার দিকে শুরু হয় এবারের সূর্যগ্রহণ। স্থায়ী হয় কয়েক ঘণ্টাজুড়ে। অবশ্য বাংলাদেশ থেকে তা দেখা যায়নি। দেখতে পেয়েছে গ্রিনল্যান্ড, সাইবেরিয়া ও উত্তর মেরুর বাসিন্দারা। কানাডা ও উত্তর আমেরিকার কিছু এলাকা থেকেও দেখা গেছে এই দৃশ্য।

বছরের দ্বিতীয় সূর্যগ্রহণ হবে, আগামী ৪ ডিসেম্বর। সেটি হবে পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ।

জাক/ফই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

হেঁচকি ওঠার কারণ ও কমানোর উপায়
মশা তাড়াতে যেসব উপকরণ ব্যবহার করা যায়
গ্রিন টির ভালো-মন্দ
পাহাড়ের ভাষা, সমতলের ভাষা