বাংলাদেশ

মাতৃত্বের ’সাধ’

মাতৃত্ব এক অসাধারণ অনুভূতি। গর্ভকালীন সময়ে একজন মা প্রতিটি ধাপে নতুন নতুন অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে যান। কষ্টের নানান রঙে উপভোগ করেন আনন্দ। এই আনন্দ উদযাপনে বিশ্বের নানান দেশে পালিত হয় নানান ধরনের আচার-অনুষ্ঠান। মা হওয়া আর সন্তান জন্মদান ঘিরে নতুন মাকে দেয়া হয় বিভিন্ন ধরনের উপহার।

 

বাংলায় মায়েরসাধ’

বাংলায় উৎসবটির নাম ’সাধ’। বাঙালি হিন্দুদের মধ্যে এটা অবশ্যই পালনীয়। যুগ যুগ ধরে চলে আসা এই রীতি এখন হিন্দু-মুসলিম সবাই কম-বেশি পালন করে থাকে। ধারণা করা হয়, সন্তান জন্মদানের সময় মায়ের ঝুঁকিপূর্ণ  ও  বিপজ্জনক অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে এই প্রথার প্রচলন হয়েছিল।

 

সন্তান জন্ম দিতে যাওয়ার আগে মায়ের যতো চাওয়া আর ইচ্ছা রয়েছে, তা পূরণ করার চেষ্টা করা হয় এই আয়োজনে। যেমন খাদ্য, কাপড় অথবা অলঙ্কার দেয়া হয় নতুন মাকে। এই প্রথায় নিশ্চিত করা হয়, প্রসবের জন্য সন্তান যেনো যথেষ্ঠ শক্তপোক্ত থাকে।

 

অনেক সময় পুষ্টিকর খাদ্যের অভাবে মা ও গর্ভের শিশু- উভয়েরই মৃত্যু হয়। আবার পুষ্টিকর খাদ্য মায়েরা না খেলে, গর্ভের শিশুরও খাদ্যে ঘাটতি দেখা দেয়৷ যে দুধ পান করে শিশু বেড়ে ওঠে, শক্তি সঞ্চয় করে, দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে ওঠে, তারও অভাব দেখা দেয়৷ তাই এই সব দিক বিবেচনা করে মায়েদের খাবারের ওপর জোর দেয়া হতো এই অনুষ্ঠানে।

 

‘সাধ’ সাধারণত গর্ভবস্থার সপ্তম মাসে পালিত হয়। সাধারণত দুপুরের খাবারের আয়োজন করা হয়ে থাকে এই অনুষ্ঠানে। সন্তানসম্ভবা মা একটি নতুন শাড়ি এবং হরেক রকম অলঙ্কার পরেন, যা কিনা তার মা, শ্বাশুড়ি অথবা খালারা দিয়ে থাকেন। অনুষ্ঠানে বাঙালি ঐতিহ্যের বিশেষ খাবার- যেমন মাছের মাথা, প্রায় পাঁচ রকমের শুকনো খাবার, কলা, পিঠা-পুলি এবং নানা রকম সবজি একটি থালায় সাজানো থাকে। মা তার পছন্দমতো খাবার নিয়ে খান এবং মিষ্টি বা পায়েস দিয়ে তার খাওয়া শেষ করেন। হবু মায়ের সব দুশ্চিন্তা আর সংশয় দূর করতে মূলত এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

 

বাড়ির মুরব্বীরা, হবু মা যত্নে আছে ভেবে আত্মতুষ্টি লাভ করেন। হবু মায়ের কোল-ভর্তি করে উপহার সামগ্রী দেয়ার পাশাপাশি তাকে ঘিরে সবাই গান-বাজনা-নাচ করে।

 

অনাগত শিশুকে স্বাগত জানাতেই গর্ভবতী মায়েদের ’সাধ’ উৎসবের এতো এতো আয়োজন। তবে বিভিন্ন জায়গায় এর ভিন্ন ভিন্ন নাম। কোথাও সাধ, কোথাও সাতোসা, কোথাও বা নওশা। আবার ভারতে এর নাম ‘গোদ ভারাই’। পশ্চিমা দেশগুলোতে সাধ পরিচিত বেবি শাওয়ার নামে।

 

শাই

LIVE
Play
ছুটিতে ওবামা যে বইগুলো পড়বেন
বাণিজ্যযুদ্ধের লাভ-ক্ষতি
৭০ বছরের পুরোনো ভূতুড়ে ছবির রহস্য!
উসাইন বোল্টের গতির তুলনা!