আলোচিত, বাংলাদেশ

মিয়ানমারকে ‘অনেক কিছু’ করতে হবে: বান কি-মুন

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি-মুন বলেছেন, রোহিঙ্গা সঙ্কটের অবসান ঘটিয়ে শরণার্থীদের নিজ আবাসে বসবাস নিশ্চিতে মিয়ানমার সরকারের আরও দায়িত্ব পালন করতে হবে।

 

বুধবার ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে করে কক্সবাজারের উখিয়ায় পৌঁছান বান কি-মুন। তার সঙ্গে ছিলেন মার্শাল দ্বীপপুঞ্জের প্রেসিডেন্ট হিলডা সি হেইন, বিশ্ব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ক্রিস্টালিনা জর্জিওভা, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

 

বান কি-মুন বলেন, ‘আমি যখন জাতিসংঘে কাজ করেছি, তখন আমি লাখ লাখ শরণার্থীকে সহায়তা করেছি। এর মধ্যে সিরিয়ার শরণার্থীরাও ছিল। কিন্তু আজকে যা দেখলাম এখানে, এটা সত্যিই হৃদয়বিদারক। ফলে দীর্ঘ সময়ের জন্য বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া বাংলাদেশের পক্ষে সম্ভব নয়।‘

 

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর আকার বেড়ে যাওয়ায় স্থানীয় পরিবেশের ওপর কী ধরনের প্রভাব পড়ছে, তা দেখতে কক্সবাজারে যান গ্লোবাল কমিশন অন অ্যাডাপটেশনের চেয়ারম্যান বান কি-মুন।

 

তিনি বলেন, ‘মিয়ানমার সরকারের অনেক বেশি কিছু করার আছে, যার ফলে রোহিঙ্গারা ভয়হীনভাবে তাদের মাতৃভূমিতে ফিরতে পারে।’

 

নির্যাতনের মুখে রাখাইন থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে ফেরত নেয়ার আশ্বাস মিয়ানমার দিলেও তাতে কোনো অগ্রগতি নেই।

 

ফই/শাই/ফই
LIVE
Play
শিরোপা জিতলো ইংল্যান্ড, মন জিতেছে নিউজিল্যান্ড
ডেটিং অ্যাপ
তবুও স্বপ্ন দেখে যাই
ভারত সরকার কি মিথ্যা বলছে?