আন্তর্জাতিক, বাংলাদেশ, শীর্ষ খবর , ,

মিয়ানমার: সেনা একাডেমিতে হামলায় নিহত ১৫

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ৫টি ভিন্ন ভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসব হামলায় ১৫ জন নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ডিফেন্স সার্ভিস টেকনোলজিক্যাল একাডেমিতে (ডিএসটিএ) এবং পিন-ও-লুইন শহর ও এর আশেপাশের এসব হামলা চালানো হয়।। নিহতদের বেশিরভাগ সামরিক বাহিনীর সদস্য।

সুরক্ষিত ও অভিজাত সামরিক কলেজ ডিএসটিএতে হামলার ঘটনা গত কয়েক দশকে এই প্রথম।

স্থানীয় তিনটি বিদ্রোহী সংগঠনের জোট নর্দান অ্যালায়েন্সের পক্ষ থেকে হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। এ সংগঠনগুলি কেন্দ্রীয় সরকারের সাথে যুদ্ধবিরতিতে স্বাক্ষর করেনি।

সম্প্রতি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর উদ্দেশে একটি যৌথবিবৃতি দেয় শান রাজ্যের ওই তিনটি সশস্ত্র গোষ্ঠী। ওই বিবৃতিতে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে সামরিক অভিযান না চালানোর আহ্বান জানায় তারা। যৌথবিবৃতিতে আরও বলা হয়, এসব এলাকা দখলের চেষ্টা করা হলে গৃহযুদ্ধের দায়ভার সেনাবাহিনীকেই নিতে হবে।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, শান রাজ্যের পায়িন উ লউয়িন শহরে ডিফেন্স সার্ভিস টেকনোলজিক্যাল একাডেমিতে ও অপর চারটি জায়গায় হামলার দায় স্বীকার করেছে ওই অঞ্চলে তৎপর বিদ্রোহী সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর জোট নর্দান অ্যালায়েন্স।

তবে মোট চারটি জায়গায় হামলার কথা জানিয়েছে মিয়ানমারের বার্তা সংস্থা ইরাবতী।

খবর, রয়টার্স

LIVE
Play
ছাত্র সংগঠনগুলোর আয়ের উৎস কী?
হলুদের গুণাগুণ
ভয়ঙ্কর গ্যাস এসএফ-সিক্স
বোকা পাখি ডোডো