বাংলাদেশ ,

‘রাজনৈতিক দলগুলোর সম্মতির ওপর নির্ভর করছে ইভিএম ব্যবহার’

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ‘সক্ষমতা, প্রশিক্ষণ, আইন ও রাজনৈতিক দলের সমর্থনের ওপর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার নির্ভর করছে। এছাড়া যদি ২৫টি আসনে এ যন্ত্র ব্যবহার করি। তবে তা পূর্ব থেকে নির্ধারণ করবো না। এটা র‌্যানডম ঠিক করবো।’

 

নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের (ইটিআই) ভবনের ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সোমবার ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার সংক্রান্ত দু’দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধনের সময় এসব কথা বলেন তিনি।

 

সিইসি নূরুল হুদা আরও বলেন, ‘ইভিএম নিয়ে আমরা এখন প্রস্তুতিমূলক অবস্থানে রয়েছি। জাতীয় সংসদে যদি আইন পাস হয়, আর যদি সক্ষমতা অর্জন হয় এবং জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়, তাহলে যতোটুকু পারবো, ততোটুকু জায়গায় ইভিএম ব্যবহার করবো।’

 

এদিকে, বর্তমান ভোটিং ব্যবস্থার সমস্যা তুলে ধরে সিইসি জানান, ‘ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে হাজার রকমের জিনিসপত্রের প্রয়োজন হয়। আর চিন্তায় থাকতে হয় কেন্দ্রে পৌঁছানোর সময় ব্যালট পেপার ছিনতাই হয়ে যাবে কিনা। কিন্তু প্রযুক্তির ব্যবহার হলে এসব জিনিসপত্রের প্রয়োজন হবে না। তাছাড়া, নির্বাচন পরিচালনায় ৭০ ভাগ খরচ হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জন্য। ইভিএমে এই খরচ কমে আসবে।’

 

তিনি বলেন, সরকার যদি আইন পাস করে দেয়, আর পরিবেশ পরিস্থিতি যদি অনুকূলে থাকে তবেই সংসদ নির্বাচনে র‌্যানডমলি ইভিএম ব্যবহার করা হবে। তিনশ’ আসনের মধ্যে ২৫টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করবো। আর র‌্যানডমলি আসনগুলো বাছাই করবো। এখানে কারো পছন্দ-অপছন্দের বিষয় থাকবে না।

 

প্রধান নির্বাচন কমিশনার নূরুল হুদা বলেন, নতুনভাবে কিছু শুরু করলে আলোচনা-সমালোচনা হয়। ইভিএম কিভাবে ব্যবহার হবে সেটা নিয়ে স্বাভাবিকভাবে দলগুলো মধ্যে উৎকন্ঠা থাকবে, সেটাই তারা করেছে। অনেক প্রশ্নের উদ্ভব হয়েছে, সেগুলো প্রাসঙ্গিক। এছাড়া এগুলো নিয়ে আমরা ব্যাপকভাবে প্রচারে পৌঁছাতে পারিনি।

ফাই//মাও

Comments are closed.

LIVE
Play
আকাশের আত্মহত্যা ও পুরুষতান্ত্রিক তসলিমা নাসরিন
লাল সবুজের পতাকা কন্যা নাজমুন নাহার দেশ দেশান্তে!
‘বিএনপির মৌসুমীরা’ আওয়ামী লীগে মৌসুমী পাখি!
অ্যাডভেনচারের নেশায় | পর্ব ৩