আন্তর্জাতিক, আলোচিত, প্রযুক্তি, বাংলাদেশ

চাঁদের অন্ধকার অংশও দেখলো চীন

চেইঞ্জ-৪ নামে চীনের একটি চন্দ্রযান চাঁদের ডার্কসাইড বা অন্ধকার অংশে অবতরণ করেছে। চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে। চাঁদে প্রাণের রহস্য নিয়ে গবেষণার জন্য এই চন্দ্রযান পাঠানো হয়েছে।

 

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, মহাকাশ গবেষণায় চীনের এই চন্দ্রযানের অবতরণকে মাইলস্টোন হিসেবে দাবি করছে চীনা কর্তৃপক্ষ। বলা হচ্ছে আগের যেসব চন্দ্রযান পাঠানো হয়, সেগুলো অবতরণ করেছিলে চাদের পৃথিবী মুখী অংশে। কিন্তু চেইঞ্জ-৪ প্রথম কোন চন্দ্রযান যে চাদের পৃথিবীর বিপরীত দিকের অংশে অবতরণ করেছে যে অংশটিকে চাঁদের অন্ধকার অংশ বলেও অভিহিত করা হয়। চাঁদের ঐ অংশ পৃথিবী থেকে খুব কম সময় দেখা যায় বলে অন্ধকার অংশ বলা হয়। তবে পৃকৃতপক্ষে চাঁদের ঐ অংশেও দিন-রাত্রি হয়।

 

 

এ বিষয়ে যুক্তরাজ্যের মুলার্ড, স্পেস সাইন্স ল্যাবরেটরী’র অধ্যাপক এন্ড্রু কোওটস বলেন, চাঁদের অন্ধকার অংশ আরো বেশী রুক্ষ ও অনেক বেশী গর্তে ভরা। এই অংশে ‘‘কারমান’’ নামে পরিচিত একটি বিশাল গর্তে অনুসন্ধান চালাবে চেইঞ্জ-৪। যে গর্তটিকে, চাঁদের সৃষ্টির শুরুর দিকে বড় ধরনের কোন মহাজাগতিক প্রভাবে সৃষ্টি হয়েছে বলে ধারণা করে বিজ্ঞানীরা। চাঁদের বুকে কারমান নামের এই বিশালাকৃতির গর্তের ব্যাস প্রায় ২ হাজার ৫শ কিলোমিটার এবং গভীরতা প্রায় ১৩ কিলোমিটার।

 

এই প্রথমবার চাঁদের অন্ধকার অংশের পাথর, ও ধুলা সংগ্রহ করতে সক্ষম হবেন তারা। যেটি চাঁদ নিয়ে গবেষণায় আরো নতুন কোন তথ্য ও সুযোগ সৃষ্টি করতে পারার প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

 

এর আগে চেইঞ্জ-৩ নামে একটি চন্দ্রযান চাঁদে পাঠিয়েছিল চীন। কিন্তু সেটিতে খুব একটা সফলতা মেলেনি। এ বছরের শেষের দিকে চাঁদ থেকে বিভিন্ন নমুনা নিয়ে ফেরার কথা রয়েছে চেইঞ্জ-৪ এর।

 

 

পিহা/হাজা/ফই

LIVE
Play
আকাশের আত্মহত্যা ও পুরুষতান্ত্রিক তসলিমা নাসরিন
লাল সবুজের পতাকা কন্যা নাজমুন নাহার দেশ দেশান্তে!
‘বিএনপির মৌসুমীরা’ আওয়ামী লীগে মৌসুমী পাখি!
অ্যাডভেনচারের নেশায় | পর্ব ৩