বাংলাদেশ, শীর্ষ খবর

মালদ্বীপে বাংলাদেশি শ্রমিকদের অর্ধেকই অবৈধ

নীল জলরাশির দেশ মালদ্বীপে প্রায় এক লাখ প্রবাসী বাংলাদেশির মধ্যে, অর্ধেকই অবৈধ। আর তাদের এই অবৈধ হওয়ার সুযোগ নিচ্ছে নিয়োগদাতারা।

বেতন ভাতা না দিয়ে, ঠকানোর ঘটনা ঘটছে অহরহ। এদিকে, দুবছর ধরে বন্ধ দেশটির শ্রমবাজার।

শফিকুল ইসলাম খান। বেশ কয়েক বছরের প্রবাস জীবন। দালালের হাত ধরে মালদ্বীপে পাড়ি। অবৈধ পথে যেতেই তার লেগেছে প্রায় দুই মাস।

শফিকুলের মতো, অসংখ্য বাংলাদেশি দেশটিতে থাকছে, যাদের আইনি বৈধতা নেই। গেছেন, বেআইনি প্রক্রিয়ায়। কেউ কেউ মালদ্বীপ সরকারের নানা নীতির কারণে এখন অবৈধ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারিও কম।

এসব শ্রমিকরা থাকতে পারছেন, কাজকর্মও চলছে। পুলিশি ঝামেলা না থাকলেও, পদে পদে হয়রানির শিকার তারা। অপ্রতিষ্ঠানিক খাতে যারা কাজ করেন, তাদের গল্পটা বড্ড করুণ। ঠিকমতো বেতনই জোটে না তাদের।

এসব সমস্যা নিরসনের দায়িত্ব দূতাবাসের। মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার রিয়ার অ্যাডমিরাল নাজমুল হোসেন বলেন, সংকট সমাধানে তারা তৎপর। চলছে চিঠি চালাচালি। শিগগিরই প্রধানমন্ত্রীর সফরে বিষয়টি ফের আলোচনায় আসবে সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে।

শ্রমিকরা বলছেন, তারা বেতন ভাতার জন্য শক্ত অবস্থান নিতে পারছেন না। মালিকরা, বৈধ কাগজ না থাকার বিষয়টিকে পুঁজি করছে।

২০১৯ সালের শেষ দিক থেকে, মালদ্বীপ তার শ্রমবাজারে বাংলাদেশি শ্রমিক নিচ্ছে না।

সাইদ আরমান/ফই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

‘কাঁচা বাদাম’ গান ও একজন ভুবন বাদ্যকার
মা ও স্ত্রীর মধ্যে ভারসাম্য রাখতে চান?
অন্ধদের দৃষ্টি ফেরাবে বায়োনিক চোখ
আপনার ফোনে আড়ি পাতলে কিভাবে বুঝবেন?