বিশেষ সংবাদ

পরবর্তী প্রজন্মের কাছে সিগারেট বিক্রি নিষিদ্ধ করবে নিউজিল্যান্ড

ধূমপান বন্ধ করার লক্ষ্যে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড সরকার। ২০০৮ সালের পরে জন্মগ্রহণকারীরা সিগারেট বা তামাকজাত দ্রব্য কিনতে পারবেন না। আগামী বছর এ বিষয়ে আইন প্রণয়ন করা হবে বলে জানানো হয়েছে।  

“আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে তরুণরা কখনই ধূমপান শুরু করবে না,” বলেছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রী ডাঃ আয়েশা ভেরাল।

পদক্ষেপটিকে ধূমপান-বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে নিউজিল্যান্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। দেশের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা এই সংস্কারকে স্বাগত জানিয়েছেন। তামাকের বিক্রয় কমানো এবং সিগারেটে নিকোটিনের মাত্রা সীমাবদ্ধ করাও সংস্কারের অংশ হিসেবে থাকবে।

“এটি মানুষকে ধূমপান ছেড়ে দিতে বা কম ক্ষতিকারক বিকল্প পণ্যগুলো ব্যাবহার করতে সহায়তা করবে। যার ফলে, তরুণদের নিকোটিনে আসক্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যাবে,” বলেছেন অধ্যাপক জ্যানেট হুক, অটাগো বিশ্ববিদ্যালয়।

অভিযানটির বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে নিউজিল্যান্ডে।

“এটা ভালো উদ্যোগ। কারণ এই মুহুর্তে অনেক শিশু-কিশোরই  মুখে সিগারেট নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সাধারণ মানুষ জিজ্ঞাসা করছে কিভাবে তারা এগুলো পাচ্ছে,” রয়টার্স নিউ এজেন্সিকে এক ব্যক্তি একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন “এই সিদ্ধান্ত আমার জন্যও ভালো হবে কারণ আরও টাকা সঞ্চয় করতে পারব”

তবে সমালোচকরা সতর্ক করেছেন যে এই পদক্ষেপ তামাকের কালো বাজার তৈরি করতে পারে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল বিবৃতিতে এই সম্ভাবনা স্বীকার করা হয়েছে। বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে “সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ কার্যকর করতে কাস্টমসের সহায়তা প্রয়োজন।”

নিউজিল্যান্ড ২০২৫ সালের মধ্যে জাতীয় ধূমপানের হার ৫% এ নামিয়ে আনার বিষয়ে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বলে জানিয়েছে।

এই মুহুর্তে, নিউজিল্যান্ডের প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ১৩ শতাংশ ধুমপায়ী। কিন্তু মাওরি আদিবাসী সম্প্রদায়ের মধ্যে ধূমপানের হার প্রায় এক তৃতীয়াংশ।

মাসারু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

‘কাঁচা বাদাম’ গান ও একজন ভুবন বাদ্যকার
মা ও স্ত্রীর মধ্যে ভারসাম্য রাখতে চান?
অন্ধদের দৃষ্টি ফেরাবে বায়োনিক চোখ
আপনার ফোনে আড়ি পাতলে কিভাবে বুঝবেন?