ফিচার, শিল্প সাহিত্য

বাংলাদেশের প্রথম ডাকটিকেট

জাবের হাসান

একটি দেশের প্রাথমিক পরিচয় তার পতাকায়। আর দেশের প্রাথমিক প্রচার তার ডাকটিকিটে। ১৯৭১ সালের ২৬ জুলাই মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন অবস্থায় বাংলাদেশের প্রথম ডাকটিকেট প্রকাশিত হয়।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিসংগ্রামের প্রতি বর্হিবিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণ ও সমর্থন লাভের উদ্দেশ্যে মুজিবনগর সরকার ডাকটিকিট প্রচলন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিলো।

বাংলাদেশ সরকার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য ও ডাক বিভাগের পোস্টমাস্টার জেনারেল জন স্টোনহাউসকে এ ডাকটিকিট প্রকাশের দায়িত্ব দেয়।

জন স্টোনহাউস লন্ডনপ্রবাসী বাঙালি নকশাকার বিমান মল্লিককে ডাকটিকিটের নকশা করার দায়িত্ব দেন। বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী ১৯৭১ সালের ২৬ জুলাই লন্ডনের হাউস অব কমনসে বিমান মল্লিকের নকশা করা আটটি ডাকটিকিট ও একটি উদ্বোধনী খাম প্রদর্শন করেন।

বাংলাদেশের প্রথম ডাকটিকেটের নকশাকার বিমান মল্লিক

ডাকটিকিটের একটিতে ছিলো বাংলাদেশের মানচিত্র, অন্য একটিতে ছিল ব্যালটবাক্স। ব্যালটবাক্স গণতন্ত্রের প্রতীক। আরেকটি ছিল শিকল ভাঙার ছবি। এর দ্বারা ইঙ্গিত করা হয়েছে বাংলাদেশ পাকিস্তানের পরাধীনতা থেকে মুক্ত হয়েছে। একটি টিকিটে ছিল বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি, আরেকটিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণহত্যার চিত্র।

বাংলাদেশের প্রথম প্রকাশিত আটটি ডাকটিকিট
১ আগষ্ট ট্রাফালগার স্কোয়ারে

প্রথম আটটি ডাকটিকিটের মূল্য

১. বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থান, মূল্য: ১০ পয়সা।

২. ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হত্যাকান্ড, মূল্য: ২০ পয়সা।

৩. সাড়ে সাত কোটি মানুষ, মূল্য: ৫০ পয়সা।

৪. ১৯৭০ সালের নির্বাচনের ফল, মূল্য: ১ টাকা।

৫. ভোটের ব্যালট বাক্স, মূল্য: ২ টাকা।

৬. ১০ এপ্রিল ১৯৭১ এ স্বাধীন বাংলাদেশ সরকার ঘোষণা, মূল্য: ৩ টাকা।

৭. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান, মূল্য: ৫ টাকা।

৮. বাংলাদেশকে সমর্থন করুন, মূল্য: ১০ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

অন্ধদের দৃষ্টি ফেরাবে বায়োনিক চোখ
আপনার ফোনে আড়ি পাতলে কিভাবে বুঝবেন?
দিলীপের পরকীয়ার যাতনা আমৃত্যু সয়েছেন সায়রা
গাঁজা সেবনকারীর মন ও মস্তিষ্কে কি ঘটায়?