27 C
Dhaka
শুক্রবার, আগস্ট ১২, ২০২২

আপনার ধোঁয়া ওঠা চা, কিভাবে বাগান থেকে এলো

বিশেষ সংবাদ

Juboraj Faishal
Juboraj Faishalhttps://www.nagorik.com
Juboraj Faishal is a News Room Editor of Nagorik TV.
- Advertisement -

আপনি কি চা ভালোবাসেন? সকালে চায়ে চুমুক দিয়ে দিন শুরু হয় আপনার? এই ধোঁয়া ওঠা চা, বাগান থেকে কিভাবে আপনার পেয়ালায়, তা জানতে চান নিশ্চয়ই? একইসাথে বাড়তি পাওয়া, হাতে তৈরি চায়ের চকলেট।

সমুদ্রপৃষ্ঠ ২,২৪০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত ভারতের তামিলনাড়ুর উটি শহর। আবহাওয়ার কারণে ইংরেজ শাসকদের খুবই পছন্দের জায়গা ছিল। তাই ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সাম্রাজ্যবাদীরা মাদ্রাস প্রেসিডেন্সি ঘোষণার পর, উটিকে গ্রীষ্মকালীন রাজধানী হিসাবে ব্যবহার করতে শুরু করেন। আর এখানে চায়ের প্রচলনও শুরু হয় দারুণভাবে। এটি এমন একটি জায়গা, যেখানকার বাসিন্দারা চায়ে বাস করেন এবং চায়ে শ্বাস নেন ।

আমরা চলেছি শহর থেকে প্রায় ৪ কিলোমিটার দূরে নীলগিরি পাহাড়ে ১৮৩৯ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত উটি টি ফ্যাক্টরী ও মিউজিয়ামে। সাউথ ইন্ডিয়ার সবচেয়ে উচু স্থানে প্রতিষ্ঠিত এই কারখানাটি ১ একর জায়গায় জুড়ে।

এখানে আছে চা জাদুঘর, যেখানে আমরা জানতে পারবো কিভাবে কাট, টুইস্ট এবং কার্ল পদ্ধতি ব্যবহার করে চা প্রক্রিয়া করা হয়। এর সাথে, আমরা চায়ের ইতিহাস এবং বিবর্তনও দেখবো।

এ এক অন্যরকম জাদুঘর। টিকিট ১০ রুপি। ভেতরে ঢুকে চোখে পড়লো এ অঞ্চলে চায়ের ইতিহাস সম্বলিত কিছু ছবি। চায়ের কাঁচা পাতার ঘ্রাণ লাগছে নাকে এসে। দর্শনার্থীদের কাছে বড় আকর্ষণ এটি। চা উৎপাদন লাইভ দেখা।

চা-পাতা থেকে চা-পাতি পর্যন্ত সবকিছু দর্শনার্থীদের দেখানোর ব্যবস্থা আছে এখানে। এটা যেহেতু পর্যটকদের জন্য, সেহেতু এখানে এক শিফটে কাজ হয়।

ফ্যাকটরির ম্যানেজার বর্ধমান রাজ জানাচ্ছিলেন, সিজনে প্রতিদিন গড়ে ৪০০০ লোক দেখতে আসে জাদুঘরটি। সবচেয়ে ভালো চা হলো সিলভার টিপস টি। যা হাত দিয়ে কুড়ি তোলার পর প্রাকৃতিক সূর্যের আলোতে শুকিয়ে বানানো হয়। এই চা পাতিতে মানব দেহের জন্য উপকারি প্রচুর এন্টি অক্সিডেন্টট আছে।

চমক এখানেই শেষ নয়, চা দেখে বের হওয়া যাবে না। আবার উপরে উঠতে হবে। এবার চকলেট কারখানা দেখার পালা। হাতে তৈরি চকলেট সেই ব্রিটিশ আমল থেকেই এখানে বিখ্যাত। সেই চকলেট তৈরি দেখা এবং কেনার সুযোগও আছে। দাম কেজিপ্রতি ৮শ থেকে ২ হাজার রুপি পর্যন্ত। ফ্যাক্টরির বাইরে পরিবেশটাও মন ভোলানো।

বাইরে বেরিয়ে সারি ধরে চায়ের দোকান। সেখান থেকে কেনা যাবে হরেক পদের চা। সর্বনিম্ন ২শ টাকা থেকে শুরু সর্বোচ্চ নয় হাজার টাকা দামের চা কিনতে পারবেন এখানে। এছাড়া টি অয়েল থেকে শুরু করে মিলবে বিভিন্ন হারবাল পণ্য।

প্যাঁচানো লোহার ঘেরা পথ ধরে যখন চা উৎপাদনের সব প্রক্রিয়া শেষ, তখন নিচে নামতেই চমক দেবে উৎপাদিত টাটকা চায়ের গরম গরম এক কাপ চা। দর্শনার্থীদের জন্য এটা ফ্রি।

শাহনাজ শারমীন/ফই

- Advertisement -
- Advertisement -

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

সর্বাধিক পঠিত