22 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪

ফোরজি নিয়ে অনিশ্চয়তা

বিশেষ সংবাদ

Juboraj Faishal
Juboraj Faishalhttps://www.nagorik.com
Juboraj Faishal is a News Room Editor of Nagorik TV.
- Advertisement -

 

২০১৮ এর প্রথম ভাগেই ফোরজি (4G) সেবা চালুর আশা করেছিল সরকার। এজন্য কাজও শুরু করে দিয়েছিলো বিটিআরসি। ফোরজি মোবাইল ফোন সেবার লাইসেন্স এবং তরঙ্গ নিলামের জন্য আবেদন আহবান  করে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা-বিটিআরসির করা বিজ্ঞপ্তি স্থগিত করে দিয়েছে হাই কোর্ট।

হাইকোর্টের দেয়া স্থগিতাদেশ আসার আড়াই ঘণ্টার মাথায় রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের চেম্বার আদালত তা স্থগিত করে বিষয়টি শুনানির জন্য রোববার আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেয়।

ফোরজি লাইসেন্সের জন্য নিলাম হবে না, আবেদন করে নির্দিষ্ট অর্থ জমা দিয়ে লাইসেন্স নেওয়া যাবে – একথা ২০০৮ সালে বিটিআরসির নীতিমালায় উল্লেখ আছে। তারপরও লাইসেন্সের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেয় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। বিটিআরসির এই সিদ্ধান্তের বিপক্ষে আদালতে রিট আবেদন দায়ের করে বাংলালায়ন কমিউনিকেশন্স লিমিটেড।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ড. কামাল হোসেন , সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী রমজান আলী শিকদার ও সাইফুল আলম চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস।

আইনজীবীরা বলছেন,  ২০০৮ সালের বিটিআরসির এক নীতিমালার পরিপন্থী বিটিআরসির এই বিজ্ঞপ্তিটি।  নীতিমালায় তিনজনের বেশি এই লাইসেন্স (বিডব্লিউএ, ফোরজি) দেওয়া যাবে না কিন্তু  সরকারকে একটি দেওয়া যাবে বলে উল্লেখ আছে। মোবাইল ফোন অপারেটররা এ জন্য যোগ্য হবে না। নীতিমালার এই  নীতি উপেক্ষা করেই ফোরজি লাইসেন্সের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।

 

 

- Advertisement -
- Advertisement -

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বাধিক পঠিত