28 C
Dhaka
সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২

প্রতিবেশী মিয়ানমার কী গৃহযুদ্ধের কবলে পড়তে যাচ্ছে?

বিশেষ সংবাদ

Juboraj Faishal
Juboraj Faishalhttps://www.nagorik.com
Juboraj Faishal is a News Room Editor of Nagorik TV.
- Advertisement -

মিয়ানমারের ভেতরের পরিস্থিতি ক্রমাগত জটিল রূপ নিচ্ছে। বিভিন্ন প্রদেশে গণতন্ত্রকামী গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে, যোগ দিচ্ছে সাধারণ বার্মীজরাও।

অস্ত্র হাতে ফুঁসে উঠছে, জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে। কারফিউ দিয়েও সামালানো যাচ্ছে না পরিস্থিতি। বিশ্লেষকরা বলছেন, সামনে গৃহযুদ্ধের কবলে পড়তে পারে দেশটি। তাই, প্রতিবেশী হিসেবে, সজাগ থাকতে হবে বাংলাদেশকে।

মিয়ানমারের গণতন্ত্রকামী গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে সরকারি সেনাদের সংঘাতের ইতিহাস বহুদিনের। এখন তা আরও বিস্তৃত। সীমান্ত বা দুর্গম এলাকার সংঘাত, এখন ক্রমেই ধেয়ে যাচ্ছে দেশটির মধ্যাঞ্চলের দিকে।

জান্তা সরকার কারফিউ দিয়ে চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছে। নতুন নতুন নজরদারি চৌকি তৈরি করে নিরাপত্তা বাড়াচ্ছে। মিয়ানমারের জনসংখ্যার প্রায় ৬০ শতাংশেরও বেশি বার্মিজ। তাদের অনেকেই এখন স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠীগুলোকে সহায়তা করছে। অস্ত্র তুলে নিচ্ছে হাতে। গড়ে উঠেছে, পিপলস ডিফেন্স ফোর্স নামের গেরিলা বাহিনী। যাদের সদস্য প্রায় ৩০ হাজার।

বিভিন্ন দেশের সংঘাতময় পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে, যুক্তরাষ্ট্রের ইনস্টিটিউট অব পিস। তাদের প্রতিবেদন বলছে, প্রায় গৃহযুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে মিয়ানমার। কারণ, সেনাদের প্রাণহানি হাজার হাজার। অসংখ্য মানুষ বাস্তুচ্যুত। নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে গ্রামের পর গ্রাম।

নিরপত্তা বিশ্লেষকরাও মনে করছেন, মিয়ানমারে যে অবস্থা চলছে, তাতে অচিরেই দেশটি হয়তো গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে যেতে পারে।

সেটি হলে আঞ্চলিক নিরাপত্তা ঝুঁকির মুখে পড়বে। তাই, সজাগ থাকতে হবে বাংলাদেশকে। আগামী আগস্টে মিয়ানমারে সাধারণ নির্বাচন করতে চায় সামরিক জান্তা। এর আগেই পুরো দেশের নিয়ন্ত্রণ চায় সামরিক জান্তা, মনে করেন পর্যবেক্ষকরা।

আব্দুল্লাহ শাফী/ফই

- Advertisement -
- Advertisement -

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

সর্বাধিক পঠিত