31 C
Dhaka
বুধবার, জুলাই ৬, ২০২২

পদ্মা সেতু: রিজার্ভ থেকে এক ডলারও খরচ করতে হয়নি

বিশেষ সংবাদ

- Advertisement -

পদ্মা সেতু নির্মাণে বড় চ্যালেঞ্জ ছিলো- বৈদেশিক দায় দেনা পরিশোধ। প্রশ্ন ছিলো- সোয়া দুইশো কোটি ডলারের জোগান আসবে কোথা থেকে। রপ্তানি আর প্রবাসী আয়ে স্বস্তিতে থাকা অগ্রণী ব্যাংক, এই দায়িত্ব নেয়। এককভাবে ব্যাংকটি জোগান দিয়েছে প্রায় দেড়শো কোটি ডলার। রিজার্ভ থেকে একটি ডলারও খরচ করতে হয়নি।

নিজের টাকায় পদ্মা সেতু বানিয়ে বিশ্বকে চমকে দিয়েছে বাংলাদেশ। বড় ব্যয়ে বড় প্রকল্প, বিপক্ষেই ছিলেন বিশ্লেষকরা। বেশি প্রশ্ন ছিলো, এতো টাকা আর ডলার আসবে কোথা থেকে? প্রাক্কলন করা হয়, বৈদেশিক দায়দেনায় দরকার পড়বে সোয়া দুইশো কোটি ডলার।

সীমিত রিজার্ভ, কতটা সম্ভব? দফায় দফায় বৈঠক সরকারের সংশ্লিষ্টদের। চুলচেরা বিশ্লেষণ, ডলার বাণিজ্যে স্বস্তিতে থাকা অগ্রণী ব্যাংক নেয় দায়িত্ব।

মোট ব্যয় ৩০ হাজার কোটি টাকার কিছু বেশি। তবে ডলারের ব্যয় তার ৫০ শতাংশের কাছাকাছি। ২০১৩ সালে ডলার লাগে ৬ দশমিক ২৬ মিলিয়ন। পরের বছরই দরকার পওে ২৭৬ মিলিয়ন। গত বছর সবচেয়ে বেশি লাগে ১৯২ মিলিয়ন ডলার।

কর্মকর্তারা কলছেন, এখন পর্যন্ত প্রায় দেড়শো কোটি ডলার জোগান দেয়া হয়েছে। দরকার পড়েনি রিজার্ভ থেকে একটি ডলারও। যদিও, প্রস্ততি ছিলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের। প্রশ্ন ওঠেনি, বিদেশি দায় পরিশোধ নিয়ে।

পদ্মা সেতু কেবল অহংকার নয়, অর্থনীতির নতুন করিডোর। ওপারে থাকা বন্দরগুলোও আরও সচল হবে। গড়ে তোলা হবে প্রমত্ত পদ্মার ওপারে ১৭টি অর্থনৈতিক অঞ্চল।

- Advertisement -
- Advertisement -

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

সর্বাধিক পঠিত