20 C
Dhaka
শুক্রবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২৩

বিশ্বের জনসংখ্যা ৮০০ কোটি

বিশেষ সংবাদ

- Advertisement -

মানুষের ইতিহাসে আজ ১৫ নভেম্বর একটি বিশেষ দিন। এদিন ৮০০ কোটি জনসংখ্যার মাইলফলক স্পর্শ করল বিশ্ব। অবশ্য এ বছরের বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসেই বিষয়টি নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিল জাতিসংঘ। দিনটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘ডে অব এইট বিলিয়ন’।

বিশ্বের জনসংখ্যা ৮০০ কোটির মাইলফলক ছুঁয়েছে, জাতিসংঘ এমনটি জানিয়েছে। চীনকে হটিয়ে ২০৫০ সালে বিশ্বে সবচেয়ে জনবহুল দেশ হবে ভারত। বাংলাদেশ বিশ্বে অষ্টম বৃহত্তম জনবহুল দেশ।

বিশ্বসংস্থাটির জনসংখ্যা তহবিলের হিসাব অনুযায়ী, এই সংখ্যা ৭০০ কোটি থেকে ৮০০ কোটিতে পৌঁছাতে লেগেছে মাত্র ১১ বছর। জনস্বাস্থ্য, পুষ্টি, ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতা ও ওষুধের উন্নতির কারণে মানুষের আয়ু বেড়ে যাওয়ায় জনসংখ্যা এ পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে মনে করছে সংস্থাটি।

তবে সামনে এত দ্রুত জনসংখ্যা বাড়বে না বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। তবে এটি ৯০০ কোটি ছুঁতে ১৫ বছর লাগবে। সেই হিসাবে বলা যায়, বৈশ্বিক জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার আগের চেয়ে কমবে।

পৃথিবীর জনসংখ্যা বৃদ্ধিতে এখনো মূলত ভূমিকা রাখছে এশিয়া এবং আফ্রিকা। ২০৩৭ সালেও মূল ভূমিকা রাখবে এই দুই মহাদেশ। তবে ইউরোপের অবদান থাকবে ঋণাত্মক।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যমতে, বিশ্বের জনসংখ্যা ১০০ কোটির মাইলফলক স্পর্শ করে ১৮০৪ সালে। ৫০০ কোটি জনসংখ্যার মাইলফলক স্পর্শ করে বিশ্ব ১৯৮৭ সালে। ১৯৯৮ সালে বিশ্বের জনসংখ্যা হয় ৬০০ কোটি।

এ মাইলফলকের বিষয়ে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেন, এ মাইলফলক আমাদের বৈচিত্র্য উদযাপন করার, মানবতাকে স্বীকৃতি দেওয়ার এবং স্বাস্থ্যে চমৎকার অগ্রগতি উদযাপনের উপলক্ষ।

- Advertisement -
- Advertisement -

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

সর্বাধিক পঠিত