♦♦ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৬ জন এবং নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ৯৪ জন। মোট মৃত্যু ২৭ এবং আক্রান্ত ৪২৪ জন। ♦♦ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকারি ছুটি ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে : জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ♦♦ ভারতের মুম্বাইয়ে ৭০ নার্স করোনায় আক্রান্ত, কোয়ারেন্টিনে ২৫০: সিএনএন ♦♦ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে আইসিইউ থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে: বিবিসি ♦♦ করোনা উপসর্গ দেখা দিলে অথবা করোনা বিষয়ক জরুরি স্বাস্থ্যসেবা পেতে ৩৩৩ অথবা ১৬২৬৩ নম্বরে কল করুন এবং তথ্য পেতে www.corona.gov.bd ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন।। এ ছাড়া আইইডিসিআরের ইমেইল বা ১৬২৬৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। ♦♦ www.livecoronatest.com এ আপনি ঘরে বসেই কোভিড-১৯ বা নভেল করোনা ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত কি'না, তা নিজেই মূল্যায়ন করতে পারবেন। এমনকি আপনার ঝুঁকির মাত্রা ও করনীয় সম্পর্কেও জানতে পারবেন।

ফিচার , , ,

কলাক্ষেত্র ফাউন্ডেশন: বালুর বুকে সবুজের স্বপ্ন

দীপ আজাদ, চেন্নাই থেকে

এক সময়ের বালুতে ভরা পুরো জায়গাটিতে এখন শুধুই সবুজের রাজত্ব। শুধু প্রকৃতিকেই রূপান্তর করা হয় নাই, সেই সাথে শিল্প সংস্কৃতিকে লাখ লাখ তরুণ তরুণীর মনে গেঁথে দেয়া হয়েছে। বলছি ভারতের সবচেয়ে বড় শিল্প সংস্কৃতি শিক্ষার প্রতিষ্ঠান কালাক্শে‌ত্র বা কলাক্ষেত্র ফাউন্ডেশনের কথা।

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শান্তিনিকেতনের মত প্রতিষ্ঠান এটি। ১৯৩৬ সালে রুক্মিনী দেবী অরুনদালে ও তার স্বামী জর্জ অরুনদালে গড়ে তোলেন। ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের চেন্নাইয়ে বালু ভরা একটি জায়গা বেছে নেন। দিনে দিনে সেটিকে সবুজে রূপান্তর করেন তারা। কালাশক্ষেত্র, বাংলায় বললে বোঝা যায় ‘কলা কেন্দ্র’। ভারত নাট্যমসহ নৃত্যের নানা বিষয়, ভিজুয়্যাল আর্ট-এর ওপর চার বছরের ডিপ্লোমা প্রদানকারী এই কেন্দ্র এখন সরকারের সহযোগিয়তায় উন্নীত হয়েছে স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে। ১৯৬০ সালে ফাউন্ডেশনের পরিধি বেড়ে হয় ১০০ একর। পুরো জায়গায় যেনো শুধু শিল্প সংস্কৃতি চর্চার জন্যই। বালুর বুক ভেদ করে শুধু সবুজের বিচরণ। সকালে প্রার্থনার মধ্য দিয়ে শুরু হয় দিনের শেখা। যেখানে সকল ধর্মের শিক্ষক শিক্ষার্থী এক হয়। এর পর শুরু হয় নানা জায়গায় শিক্ষাদান।

কালাক্শে‌ত্র, বাংলায় বললে বোঝা যায় ‘কলকেন্দ্র’। প্রতিষ্ঠানের বর্তমান পরিচালক রেভতি রামাচন্দ্রন বললেন, হৃদয়বান রুক্মিনী দেবী তাঁর জীবনের সবকিছু উজাড় করে এই কলাকেন্দ্র সৃষ্টি করেছেন যা আজ সর্বভারতের সবচেয়ে বড় শিল্প-সংস্কৃতি শেখার প্রতিষ্ঠান। প্রকৃতির মাঝে গড়ে উঠা কলা কেন্দ্রের শিল্পীদের পারফরমেন্স সত্যি মুগ্ধ করার মতো। কেন্দ্রের পরিচালক শুরুতেই বলেছিলেন, একটা জাতির ব্যবসা, বাণিজ্য, শিক্ষা, প্রশাসন কিছুই এগোয় না যদি শিল্প, সংস্কৃতি আর সাহিত্যকে জীবনের মূল স্রোতে শামিল করা না হয়। রুক্মিনী দেবী শুধু তপ্ত বালুকে সবুজেই রূপান্তর করেন নাই, মুক্তমনা মানুষ গড়ার কারখানা তৈরি করে গেছেন। শুধু ভারতের নয়, আগ্রহী বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদেরও সুযোগ রয়েছে চেন্নাইয়ের এই কলাকেন্দ্রে পড়ার। ওয়েবসাইট থেকে ভর্তির সময় ও নিয়ম জেনে নিতে পারেন তারা।

লেখক: বার্তা প্রধান, নাগরিক টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশ

আক্রান্ত
৪২৪
সুস্থ
৩৩
মৃত্যু
২৭
সূত্র:আইইডিসিআর

বিশ্ব

আক্রান্ত
১৬০৭৯১২
সুস্থ
৩৯৭১৮০
মৃত্যু
৯৫৮১৩
সূত্র: ওয়ার্ল্ড মিটার
লকডাউনে মোবাইল হাতে, ক্ষতি করছেন নিজের!
করোনা মোকাবিলায় কানাডা
বিসিজি টিকা হতে পারে করোনার হাতিয়ার
করোনা আতঙ্কে মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখবেন যেভাবে