28 C
Dhaka
সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২

অবিশ্বাস্য রোনালদো জাদুতে থমকে গেলো স্পেন

বিশেষ সংবাদ

- Advertisement -

একি ফাইনাল ম্যাচ? এই প্রশ্ন ফুটবল বোঝা নতুন মানুষটারও। কি অবিশ্বাস্য এক ম্যাচই না দেখলো ফুটবল বিশ্ব! সম্ভবত বিশ্বকাপ ফুটবলের ইতিহাসের স্পেন-পর্তুগাল দ্বৈরথ মাইলফলক হয়ে থাকবে।

 

কিন্তু যদি সব ছাপিয়ে শুধু ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর কথাই বলা হয়, তাহলে কি দাঁড়ায়। এক রোনালদো-ই তো ম্যাচের জাদুকর, যে কিনা শেষ মুহূর্তে স্পেনের জয় ছিনিয়ে নিয়েছে একাই বীরদর্পে। সত্যিকারের যোদ্ধারা এমনই- হারের আগে যেন হারবো না।

 

পরিসংখ্যান ও বোদ্ধাদের হিসেবে পর্তুগাল থেকে এগিয়ে ছিলো স্পেন। স্প্যানিশ দলে যে তারকার মেলা, গোলরক্ষক দাভিদ দি গিয়া, পিকে, রামোস, ইনিয়েস্তা, কস্তা- দুরন্ত ফর্মে থাকা একঝাক তারকা। নাম দেখেই স্পেনকে ফেভারিট ধরে নেয়া যায়। পর্তুগালে যে এক রোনালদো, এক স্বপ্নবাজ যুবক। হ্যা যুবক নয়তো কি, ৩৬ বয়সেও কি উড়ন্ত গতি-ভাবা যায়! মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে যেন ছুটে চলেছে এক শিকারী চিতা। চার বিশ্বকাপ খেলতে এসেও ধার কমেনি এতোটুকু। বরং সমালোচকদের মুখে কুলুপ এঁটে দিয়েছেন এই রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড।

 

রেকর্ডে মোড়ানো ম্যাচে এক রোনালদো-ই গেম চেঞ্জার। হ্যাট্টিক হিরোর শেষ গোলটি সর্বকালের সেরা বিশ্বকাপ গোলের তালিকার হিসাব উল্টে দিতে পারে! অমন করেও গোল হয়, এটা বুঝি প্রথমই দেখালেন সি আর সেভেন।

 

ম্যাচের শুরু থেকেই ছিলো দুই দলের বল দখলের লড়াই। কিছুটা শান্ত থেকে গুছিয়ে নিয়ে হঠাৎ করে উঠে এসেছে স্পেন। অন্যদিকে রোনালদোকে নিয়ে সব পরিকল্পনায় কিছুটা সমন্বয়হীনতা ছিলো পর্তুগিজদের। রোনালদোকে ফাউল করায় ম্যাচের ৪ মিনিটেই পেনাল্টি, বিদ্যু গতির শটে বল জালে জড়ান লাকি সেভেন। গোছানো আক্রমণে চোকধাধানো এক গোল করেন দিয়াগো কস্তা। তবে পর্তুগিজদের আরও একবার উল্লাসে মাতান রোনালদো, ৪৪ মিনিটে দাভিদ দি গিয়ার ভুল, এটি কি শুধুই ভুল, মারাত্বক ভুল। রোনালদোর বা পায়ের শটেই তালগোল পাকিয়ে ফেলেন গিয়া। জোড়া গোল নিয়ে বিরতিতে যায় পর্তুগাল।

 

বিরতির পর ফিরেই কস্তার গোলে সমতা ফেরায় সার্জি রামোসের দল। কিছু বুঝে ওঠার আগেই রোনালদোর রিয়াল সতীর্থ নাচোর কামান গোলা শটে লিড নেয় লা রোজারা। ম্যাচে তখন তুমুল উত্তেজনা। স্পেনের ম্যাচ জেতার লড়াই আর পর্তুগালের সমতা ফেরার যুদ্ধ।

 

কখনো ক্রোধে আগুন রোনালদো, কখনো অশান্ত দুই দল। বারুদে ঝাঁঝ ছিলো, ম্যাচে ফুটবল শৈলির মহড়া ছিলো দ্বিতীয়ার্ধের পুরো সময়। একটি সুযোগের অপেক্ষায় যেনো দুই দল। ৮৮ মিনিটে সেই সুযোগ পেয়ে যায় রোনালদোর পর্তুগাল। ডি-বক্সের সামনে থেকে বাঁকানো কিক, বল জড়ালো জালে চেয়ে দেখলেন গোলকিপার গিয়া।

 

বিশ্বকাপে বুড়ো বয়সে হ্যাট্টিকের রেকর্ড গড়লেন রোনালদো, স্পেনের বিপক্ষে প্রথম কেউ এই কীর্তি গড়লো। চার বিশ্বকাপে টানা গোল করলেন রোনালদো, সব মিলিয়ে এটা তার ক্যারিয়ারের ৫১ তম হ্যাট্টিক- বিশ্বকাপেরও ৫১ তম হ্যাট্টিক। ম্যাচ শেষ পর্তুগিজ ভাষার রোনালদোর অভিব্যক্তির সহজ অনুমান করলে দাঁড়ায়- ‘এই ম্যাচ জিতেছি আমরা। জয়ী আমরাই।’

 

পয়েন্ট ভাগাভাগি বাদ দিলে এতোটুকু বাড়িয়ে বলেননি ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

 

রাশিয়া বিশ্বকাপ দেখুন নাগরিক টিভিতে

 

 

রাহিদ রনি/জাআ

- Advertisement -
- Advertisement -

আরও পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

সর্বাধিক পঠিত