ফিচার , ,

গ্রিন টির ভালো-মন্দ

স্বাস্থ্য সচেতন মানুষদের কাছে গ্রিন টির কদর বাড়ছে। গ্রিন টি ওজন কমায় বলে মনে করেন অনেকে। স্বাস্থ্যের জন্যও এটি উপকারী। গ্রিন টি হজমে সহায়তা করে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। মনকেও রাখে চনমনে।

গ্রিন টি রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। কফির তুলনায় গ্রিন টিতে ক্যাফেইন কম থাকলেও শরীরে সতেজতা আনতে এটি যথেষ্ট।

গ্রিন টিতে রয়েছে অ্যান্টি–অক্সিডেন্ট, ভিটামিন এ, বি, বি৫, ডি, ই, সি, ই, এইচ সেলেনিয়াম, ক্রোমিয়াম, জিংক, ম্যাঙ্গানিজ ও সামান্য ক্যাফেইন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, এটি রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এমনকি ক্যানসার প্রতিরোধও এটি সহায়ক। এছাড়া উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস ইত্যাদি নিয়ন্ত্রণে গ্রিন টি সাহায্য করে।

এক কাপ কফির থেকে এক কাপ গ্রিন টি পান করা বেশি স্বাস্থ্যকর। ২৩০ মিলিগ্রাম গ্রিন টিতে ২০ থেকে ৪৫ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন রয়েছে যা সাধারণ চা বা কফির তুলনায় কম।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, যেহেতু গ্রিন টি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর তাই দিনে ২-৩ কাপ গ্রিন টি খাওয়া যেতে পারে। তবে তার বেশি খাওয়া উচিত নয়। কারণ অতিরিক্ত গ্রিন টি খেলে যে টক্সিন নির্গত হয় তা সরাসরি লিভারে গিয়ে জমা হয়। যেখান থেকে পরবর্তীতে লিভার ড্যামেজের মতো সমস্যা হতে পারে।

গ্রিন টি

অন্যদিকে, খালি পেটে গ্রিন টি পান করলে শরীরে নেতিবাচক প্রভাবও পড়তে পারে।  খালি পেটে গ্রিন টি খেলে পেট ব্যথা, কোষ্ঠকাঠিন্য এবং বমিভাব হতে পারে। গ্রিন টিতে ট্যানিন রয়েছে। যা পেটে অ্যাসিড বাড়িয়ে তুলতে পারে। ফলে পেট ব্যথা হয়ে থাকে।

খালি পেটে গ্রিন টি পানের অপকারিতা:

গ্রিন টি হজমপ্রক্রিয়াকে বাড়িয়ে শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমিয়ে ফেলতে সাহায্য করে। তবে পেপটিক আলসার বা অ্যাসিড রিফ্লাক্সে আক্রান্ত রোগীদের খালি পেটে গ্রিন টি পান করা উচিত নয়।
শরীরে আয়রনের পরিমাণও কমিয়ে দেয় গ্রিন টি। এজন্য রক্তাল্পতায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের উচিত গ্রিন টি পান না করা।
খালি পেটে গ্রিন টি পান করলে তা সরাসরি রক্তকে প্রভাবিত করে। এতে রক্ত জমাট বাঁধায় কাজ করে যেসব প্রোটিন, সেগুলোর পরিমাণ কমতে থাকে। ফলে রক্ত পাতলা হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বাড়ে।

গ্রিন টি পরোক্ষভাবে ওজন কমাতে সাহায্য করে। তবে যদি ব্যায়াম না করে গ্রিন টি পান করা হয়, এটি তেমন ভালো কাজে দেয় না। ব্যায়াম এবং গ্রিন টি পান একসঙ্গে চালিয়ে গেলে ওজন কমবে দ্রুত। খাওয়ার পর এবং ঘুমাতে যাওয়ার আগে গ্রিন টি শরীরে উল্টো ক্ষতি ডেকে আনে। আর এ কারণেই সকালে নাস্তার পর কিংবা বিকেলেই গ্রিন টি পান করা উচিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

অন্ধদের দৃষ্টি ফেরাবে বায়োনিক চোখ
আপনার ফোনে আড়ি পাতলে কিভাবে বুঝবেন?
দিলীপের পরকীয়ার যাতনা আমৃত্যু সয়েছেন সায়রা
গাঁজা সেবনকারীর মন ও মস্তিষ্কে কি ঘটায়?