ফিচার

বুনোপ্রাণীর দেশ গাম্বিয়া

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। দেশটির উত্তর, পূর্ব ও দক্ষিণে সেনেগাল। পশ্চিমে আটলান্টিক মহাসাগর। বাঞ্জুল দেশটির রাজধানী। সেরেকুন্দা দেশটির বৃহত্তম শহর।

চলুন জেনে নিই দেশটি সম্পর্কে-

১.

গাম্বিয়া মূলত কৃষিপ্রধান দেশ। চীনাবাদাম দেশটির প্রধান উৎপাদিত শস্য এবং রপ্তানি দ্রব্য। পর্যটন শিল্প থেকেও আয় হয়। আটলান্টিক সাগরের উপকূলের সমুদ্রসৈকতগুলিতে ঘুরতে এবং গাম্বিয়া নদীর বিচিত্র পাখপাখালি দেখতে পর্যটকেরা দেশটিতে আসেন। গাম্বিয়াকে শুধু পাখির দেশ বললেও ভুল হবে না।

২.

প্রকৃতির সঙ্গে মিশে যেতে চাইলে যেতে পারেন আবুকু নেচার রিজার্ভে। এই রিসোর্টে ৩০০ প্রজাতির পাখি, সরীসৃপ, বনভূমি, বানর ও কুমির রয়েছে। এখানকার জেফারহ ও আলবেডা গ্রাম দুটি ঔপনিবেশিক ইতিহাস ধারণ করছে আজও।

৩.

দেশটির কিয়াং ওয়েস্ট ন্যাশনাল পার্ক পাখিদের অভয়াশ্রম হিশেবে বিবেচিত। অসংখ্য পাখি ছাড়াও বেবুনস, ওয়ার্টহগ, বুশবাবি, মার্শ মঙ্গুস সহ স্তন্যপায়ী প্রাণীদের আবাসস্থল এটি।

৪.

গাম্বিয়ার প্রধান সমুদ্রসৈকত কোতু। নানা ধরনের রেসিংয়ের জন্য জায়গাটি বিখ্যাত। পাশাপাশি মাছ ধরার ও স্নোরকেলিংয়ের ব্যবস্থা আছে।

গাম্বিয়ার সুপরিচিত ইকো ফরেস্ট মাকাসুটু কালচার ফরেস্ট। নানা প্রজাতির উদ্ভিদ রয়েছে এখানে।

৫.

প্রাচীন পাথর নিয়ে পূর্ব গাম্বিয়ায় গড়ে উঠেছে ওয়াসু স্টোন সার্কেলস। ১২০০ বছরের পুরোনো এই জায়গাটিকে প্রাচীন কবরস্থান মনে করেন অনেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

LIVE

অনলাইন আড্ডায় রুবানা হক
উচ্চ রক্তচাপে করণীয়
দ্রুত চুল লম্বা ও ঘন করার সহজ উপায়
পৌষসংক্রান্তি থেকে ‘সাকরাইন’